• এক্সক্লুসিভ
  • »
  • কালিশুরী-ধূলিয়া ব্রীজের দুই পাশের সংযোগ সড়ক মরণ ফাঁদে পরিনত, ঘটছে দুর্ঘটনা

কালিশুরী-ধূলিয়া ব্রীজের দুই পাশের সংযোগ সড়ক মরণ ফাঁদে পরিনত, ঘটছে দুর্ঘটনা

NewsBarisal.com

প্রকাশ : জুন ২৮, ২০২০, ১১:৪৩ অপরাহ্ণ

সাইফুল ইসলাম খোকন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বাউফল : পটুয়াখালী বাউফলের, কালিশুরী-ধূলিয়া, ব্রীজের দুই পাশের সংযোগ সড়ক মরণ ফাঁদের যাঁতাকলে পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে যাত্রী ও মালবাহী পরিবহনসহ সাধারণ পথচারীরা। যেকোন সময় প্রাণহানির মত দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা স্থানীয়দের।

সরেজমিন দেখা যায়, ধূলিয়া-কালিশুরী, নুরাইনপুর-ভরিপাশা ব্রিজের সংযোগ সড়কের ইটের সলিং উঠে গিয়ে বড় বড় খানা-খান্দে ভরে গেছে। ওই সংযোগ সড়কগুলো অতিমাত্রায় উচু আর খানা-খন্দের কারণে যাত্রীবিহীন ছোট রিকশাও তিনজনের সাহায্য ছাড়া উঠা সম্ভব না।

অটোরিকশা,অটো, বড় টমটম-পিকাপ এমনকি মোটরসাইকেল চলাচল করতে পোহাতে হয় চরম ভোগান্তি। কালাইয়া-ডালিমা ব্রিজের সংযোগ সড়কে বড় খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। মালবাহী টমটম চালক রহিম, রিশকা চালক সালাম ও পিকাপ চালক জাহিদ বলেন, ‘ব্রিজের রাস্তা অনকে খারাপ। আমাদের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। স্থানীয় সরকারের অতিদ্রুত রাস্তার উন্নয়নে কাজ করা উচিত। না হলে প্রাণহানীর মত ঘটনা ঘটবে।

ধুলিয়ার অটো ও টমটম চালক মোশারেফ এবং কবির বলেন ঢাকা থেকে আসা ৭-৮ খান দোতলা লঞ্চ ধুলিয়া স্টেশনে ঘাট করে এবং যাত্রীদের ভোররাত্রে পড়তে হয় চরম ভোগান্তিতে। কারণ ব্রিজের ঢাল সংযোগ খারাপ থাকায় ব্রিজ দিয়ে গাড়ি পারাপার করতে পারছিনা ফলে যাত্রীরা ব্যাগ মাথায় বহন করে ব্রিজ পারাপার হতে হয়।

এ বিষয়ে বাউফল উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী মো. সুলতান আহম্মেদ বলেন, ‘ধূলিয়া ব্রিজের সংযোগ সড়ক সংস্কারের টেন্ডার হয়েছে। কিছু দিনের মধ্যেই কাজ শুরু হবে। নুরাইনপুর ব্রিজের সংযোগ সড়কের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

কালাইয়া ব্রিজের বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, ‘আমরা পরির্দশন করেছি। ব্রিজের সংযোগ সড়কস্থল খুব ঝুঁকিপূর্ণ। ডিজাইনের জন্য হেডঅফিসে জানানো হয়েছে।

 



সর্বশেষ সংবাদ