• পটুয়াখালী
  • »
  • কাউখালীতে পাড়া মহল্লায় চলছে বাঁশের বেড়া দিয়ে লকডাউন

কাউখালীতে পাড়া মহল্লায় চলছে বাঁশের বেড়া দিয়ে লকডাউন

NewsBarisal.com

প্রকাশ : এপ্রিল ১০, ২০২০, ১২:১২ পূর্বাহ্ণ

কাউখালী প্রতিনিধি : কাউখালীতে বিভিন্ন এলাকায় ঢাকা, নারয়নগঞ্জ থেকে গত কয়েকদিনে স্থানীয় লোকজন বাড়ি আসায় করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধ ও নিজেদের রক্ষার্থে উপজেলার বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় চলছে স্বেচ্ছায় লকডাউন। স্থানীয় গ্রামবাসী নিজ উদ্যোগে এ লকডাউন করছেন।

গত কয়েকদিনে করোনা সংক্রমনের সংখ্যা ও এর কারনে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ার পর থেকে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন কাউখালীতে চলে আসায় উপজেলা প্রশাসন কঠোর ভূমিকা পালন করছে। প্রয়োজন ছাড়া কোন লোকজন যাতে বাহির না হতে পারে তার জন্য যান চলাচল বন্ধ ও ওষুধের দোকান ছাড়া সকল ধরনের দোকান পাট বন্ধ এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করে এ ঘোষণা দেওয়া এবং পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলায় প্রবেশেদ্বার চৌরাস্তা, বেকুটিয়া ফেরিঘাটে চেকপোষ্ট বসানোর পর থেকেই উপজেলা জুড়ে আতঙ্ক দেখা দেয়। এই সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে বুধবার থেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের হাত থেকে নিরাপদে থাকতে উপজেলার গান্ডতা, বৌলাকান্দা-গুয়াটন ব্রিজ, আমরাজুড়ী ফেরীঘাট, বেতকা বাজার এলাকা লকডাউন করেছেন গ্রামবাসী।

স্থানীয় গ্রামবাসীরা নিজ উদ্যোগে বাঁশ ও কাঠের বেড়া দিয়ে তাদের গ্রামের প্রবেশের রাস্তাটি বন্ধ করে দিচ্ছে। এসব এলাকার লোকজনের সাথে কথা বেল জানাযায়, করোনার এই মহামারী থেকে গ্রাম বাসীকে রক্ষার্থে আমরা এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।

যাতে করে আমাদের গ্রামে বহিরাগত কোন লোক প্রবেশ করতে না পারে এবং আমাদের লোকজন যেন প্রয়োজন ছাড়া বাহিরে যেতে না পারে। এঘটনার পর থেকেই উপজেলার বিভিন্ন এলাকার পাড়া-মহল্লায় স্বেচ্ছায় লগডাউন করা শুরু হয়েছে।

হোগলা গ্রামের ইউপি সদস্য আমানউল্লাহ্ জানান, হোগলা গ্রামে ঢাকা ও নারয়ণগঞ্জ থেকে ২ ব্যক্তি এলকায় আসায় বেতকা গ্রামের লোকজন বাজারের ব্রিজের উপরে বাঁশ দিয়ে আটকিয়ে দেয়। পরে তাদের সাথে কথা বলে প্রশাসনিক কাজের সুবিধার জন্য বেড়াটি খুলে দিয়ে গ্রামের যুবকেরা পালা করে পাহাড়া দিচ্ছে।

কাউখালী উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোছাঃ খালেদা খাতুন রেখা জানান, পাড়া-মহল্লার এই লকডাউনের বিষয়টি জানা নেই। প্রশাসনিক ভাবে কাউকে লকডাউনের নির্দেশ দেওয়া হয়নি।

কেউ লকডাউনের অনুমতিও নেয়নি। জরুরী প্রয়োজনে কোন এলাকা লকডাউন করার প্রয়োজন হলে প্রশাসনই তা করবে। কাউখালীতে এখনো এরকম প্রয়োজন পরেনি।

 



সর্বশেষ সংবাদ