মাটির নিচে ৮শ বছরের সোনার সুড়ঙ্গ

NewsBarisal.com

প্রকাশ : নভেম্বর ২, ২০১৯, ৩:৪০ অপরাহ্ণ

নিউজ বরিশাল : সম্প্রতি মাটির তলায় লুকিয়ে রাখা ৮শ বছরের পুরনো এক সোনার সুড়ঙ্গের খোঁজ পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। একই সঙ্গে সেখানে ক্রুসেড যোদ্ধাদের সদর দফতরেরও খোঁজ মিলেছে। এখন শুধু খোঁড়াখুঁড়ি করে সেই সম্পত্তি তুলে আনার অপেক্ষা। উন্নত প্রযুক্তির লেসার প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই সুড়ঙ্গের খোঁজ পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক চ্যানেলের বিজ্ঞানী লিন ও তার দল সম্প্রতি এই সুরঙ্গের খোঁজ পেয়েছেন। ইতিমধ্যে চ্যানেলে এটি সম্প্রচারও করা হয়েছে। লিন জানান, একাদশ শতকে মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম শাসকদের বিরুদ্ধে ধর্মযুদ্ধের বা ক্রসেড চলাকালে ইসরায়েলের একরির শহরের নিচে সুড়ঙ্গটি তৈরি করেছিলেন খ্রিস্টান যোদ্ধারা। ধর্মযুদ্ধের সময় ইজরায়েলের ওই শহরই ছিল যোদ্ধাদের সদর দফতর। এই সদর দফতর যাতে খুঁজে না পাওয়া যায় এজন্য মাটির এত নিচে ওই সুড়ঙ্গ তৈরি করা হয়েছিল। ওই গোপন সুড়ঙ্গ দিয়ে সদর দফতরে আসা যাওয়া করতেন খ্রিস্টান যোদ্ধারা।

এই সুড়ঙ্গ দিয়েই তারা যুদ্ধের প্রয়োজনীয় সামগ্রী এবং সঙ্গে প্রচুর সোনা নিয়ে যেতেন। তবে অনেক ইতিহাসবিদ মনে করেন, সোনার মতো মূল্যবান সম্পদ নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি সেনাদের লুকিয়ে থাকা এবং বিপদে পড়লে অন্যত্র পালাবার রাস্তা হিসাবেও ব্যবহৃত হত এই গোপন সুড়ঙ্গ। এতদিন সেই সুড়ঙ্গ ও সদর দফতরের কথা জানা থাকলেও তার প্রকৃত অবস্থান জানা ছিল না।

এই প্রথম ৮০০ বছরের পুরনো সেই সুড়ঙ্গের খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানী লিন। তবে এই সুড়ঙ্গ মাটির ঠিক কতটা নিচে রয়েছে এবং তার বিস্তৃতি কতটা জায়গা জুড়ে এখনও তা জানার চেষ্টা এখনও চালিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

ইসরায়েলের একরি শহরে মাটির উপরে থাকা খ্রিস্টান ধর্মযোদ্ধাদের সদর দফতরের ধ্বংসস্তূপ এখনও রয়েছে। বিজ্ঞানীদের অনুমান, আরো খোঁড়াখুড়ি করলে ধর্মযোদ্ধাদের লুকিয়ে রাখা অনেক সোনা উদ্ধার করা যাবে মাটির নীচের ওই সুড়ঙ্গ থেকে।

 



সর্বশেষ সংবাদ
%d bloggers like this: