মাওলা কয়েক কোটি টাকা নিয়ে উধাও

NewsBarisal.com

প্রকাশ : সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯, ৫:২৪ পূর্বাহ্ণ

সুজন মোল্লা, বানারীপাড়া : বানারীপাড়া উপজেলার প্রায় ঘরে কানপাতলেই শোনাযায় নিরব কান্না। অসহায় মানুষ থেকে শুরু করে সকল পর্যায়ের মানুষের চোখে ধুলোদিয়ে সমবায় সমিতির নামে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে মাওলা নামের এক ব্যাক্তি।

শতাধিক ভূক্তভোগি এমনই অভিযোগ করে জানান, পৌরসভার বন্দর বাজারের প্রত্যাশা বহুমূখি সমবায় সমিতির স্বত্তাধীকারী গোলাম মাওলা ডিপিএস, এফডিআর ও দৈনিক সমিতির নামে অয়েকগুন অর্থ বাড়িয়ে দেয়ার অক্লপনিয় প্রলোভন দেয় সাধারণ মানুষকে।

ভূক্তভোগিরা জানান ২০১৮ সাল শেষ হবার কয়েক মাস পূর্বে হঠাৎ একদিন শোনা যায় গোলাম মাওলাকে পাওয়া যাচ্ছেনা। তবে তার কয়েক দিনের মাথায় তাকে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। তাকে না পাওয়া এবং পরে পাওয়া যাওয়া নিয়ে মাওলার কাছে যারা টাকা পান তারা বিষয়টি চিটিং বলে আখ্যায়িত করেন।

এদিকে প্রত্যাশা বহুমূখি সমবায় সমিতিতে যারা নিয়মিত ডিপিএস ও দৈনিক সমিতি করেছেন তাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষই শ্রমিক ও ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ী। তবে যারা এফডিআর করেছেন (এককালীন টাকা জমা) রেখেছেন তাদের মধ্যে বেশির ভাগই প্রবাসীদের পাঠানো টাকা। প্রবাসীদের স্ত্রী বা তাদের কোন নিকট আত্বিয়রা এই সমতিতে টাকা জমা রেখেছেন অধিক লাভের আশায়।

এছাড়াও গ্রামীণ জনপদের অসহায় ও দরিদ্র গৃহবধূদের ডিম বিক্রির,বাজারের দোকানে দোকানে পানি দেয়া মহিলা শ্রমিকের সহ বিভিন্ন ধরণের শ্রেণি পেশার মানুষের কষ্টার্জিত টাকা রয়েছে এই সমিতিতে।

পরে ব্যক্তি বিশেষের চাপের মুখে নুন্যতম টাকা পরিশোধ করলেও তা প্রয়োজনের চেয়ে অতিব সামান্য। এখানে আরও অভিযোগ রয়েছে মাওলা সম্পত্তি ক্রয় করে এবং কথিত অপহরণ হওয়ার পরে গ্রাহকদের টাকা শেষ হয়ে গেছে এমন মুখরোচক রুপকথার কাহিনীর নাকি কোন প্রকার ভিত্তি নেই। এমন অবস্থায় প্রত্যাশা বহুমূখি সমতির সদস্যরা আন্দোলনে যেতে পারে বলে বিভিন্ন সূত্র থেকে জানাগেছে।

এবিষয়ে গোলাম মাওলার ব্যবহৃত মুঠোফোন ০১৭১২৫২০৫৯৬ নম্বরে একাধিকবার কল করলেও অপর প্রান্ত থেকে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে বানারীপাড়ার বন্দর বাজারের অলি গলিতে বর্তমানে ব্যাঙ্গের ছাতার মত গড়ে উঠেছে সমবায় সমিতি। সূত্রমতে বছরের পর বছর সমিতির নামে রক্তচোষা মুনাফা আদায় করলেও কোন পর্যায় থেকে জবাদিহিতা না থাকার কারনে সমিতি গুলোর কর্তাব্যক্তিরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত প্রত্যাশা বহুমূখি সমিতি কথিত দেউলয়া হওয়ার আগেও বানারীপাড়া উপজেলার বন্দর বাজারের আরও কয়েকটি সমিতি কথিত দেউলিয়া হওয়ার জানান দিয়ে লাপাত্তা হয়।

 



সর্বশেষ সংবাদ
%d bloggers like this: