• এক্সক্লুসিভ
  • »
  • ভোলায় গুলিবিদ্ধ ছাত্রদল সভাপতির মৃত্যু, হরতালের ডাক

ভোলায় গুলিবিদ্ধ ছাত্রদল সভাপতির মৃত্যু, হরতালের ডাক

NewsBarisal.com

প্রকাশ : August 3, 2022, 6:30 pm

Warning: A non-numeric value encountered in /home/newsbarisal/public_html/wp-content/plugins/top-10/includes/counter.php on line 142

Warning: A non-numeric value encountered in /home/newsbarisal/public_html/wp-content/plugins/top-10/includes/counter.php on line 152

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ভোলা : ভোলায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বুধবার বেলা ৩টা ১০ মিনিটে রাজধানীর গ্রিন রোডের কমফোর্ট হাসপাতালে মারা যান তিনি।

কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল ও ভোলা জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে ভোলায় রোববার পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় দুজনের মৃত্যু হলো।

গত রোববার বেলা ১১টার দিকে ভোলায় জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে দলীয় বিক্ষোভ কর্মসূচির শুরুতে পুলিশ বাধা দিলে সংঘর্ষ শুরু হয় এবং এতে স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী আব্দুর রহিম মারা যান ও ৩০ জন আহত হয়। আব্দুর রহিম সদর উপজেলার দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নের কোড়ালিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

তেল-গ্যাসের দাম বৃদ্ধি ও লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে ওই বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপি। মিছিলের একপর্যায়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ ও গুলির ঘটনা ঘটে।

এদিকে ভোলায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলমসহ দুজনের মৃত্যুর ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জেলা বিএনপি। এছাড়া ওই দিন দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো ব্যাচ ধারণ ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হবে।

জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর বুধবার বিকালে এ ঘোষণা দেন। এর আগে বুধবার বেলা ৩টা ১০ মিনিটে রাজধানীর গ্রিন রোডের কমফোর্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুরে আলম।

গত রোববার বেলা ১১টার দিকে ভোলায় জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে দলীয় বিক্ষোভ কর্মসূচির শুরুতে পুলিশ বাধা দিলে সংঘর্ষ শুরু হয় এবং এতে স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মী আব্দুর রহিম মারা যান ও ৩০ জন আহত হয়। আব্দুর রহিম সদর উপজেলার দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নের কোড়ালিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

তেল-গ্যাসের দাম বৃদ্ধি ও লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে ওই বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপি। মিছিলের একপর্যায়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ ও গুলির ঘটনা ঘটে।

এদিকে স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদল নেতার মৃত্যু ঘটনায় পরিবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়াসহ ঘটনার তদন্তে বুধবার রাতে কেন্দ্রীয় বিএনপির ১০ নেতা ভোলায় যাচ্ছেন বলে জেলা বিএনপি সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর এ তথ্য জানান। তারা বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দলীয় অফিস ও এলাকাসহ নিহতদের বাড়ি যাবেন বলেও তিনি জানান।

(Visited 1 times, 1 visits today)

 



সর্বশেষ সংবাদ